You are currently viewing নখের যত্ন – Nail Care

নখের যত্ন – Nail Care

সারাদিনের রান্না থেকে শুরু করে কাপড় ধোয়া, অফিস এর কাজের কারণে আমাদের নখ এবং হাতের উপর অনেক চাপ পরে। আবার প্রতিদিন নেইলপলিশ ব্যবহার করলেও নখে দাগ পরে যেতে পারে। যার ফলে আস্তে আস্তে নখ নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তবে কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি আছে যা দিয়ে নখের যত্ন করা যায়। সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদান যার ফলে কোনো পার্শপ্রতিক্রিয়া থাকবে না।

১। এপল সিডার ভিনেগার

যে কোনও ধরনের দাগ দূর করতে আপেল সাইডার ভিনিগারের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। এক্ষেত্রে কীভাবে কাজে লাগাতে হবে এই প্রাকৃতিক উপাদানটিকে? দেড় চামচ আপেল সাইডার ভিনিগারের সঙ্গে তিন চামচ গরম জল মিশিয়ে নিন। সেই মিশ্রণে ৭ মিনিট নখ চুবিয়ে রাখুন, তাহলেই উপকার মিলবে।

তবে একটা বিষয় মাথায় রাখা জরুরি। মিশ্রণটিতে নখ চুবিয়ে রাখার পরে ঠান্ডা জল দিয়ে প্রতিটা নখ আর একবার ধুয়ে নিতে ভুলবেন না। সপ্তাহে একবারই এই ঘরোয়া পদ্ধতিটিকে কাজে লাগাবেন, তাতেই দাগ দূরে হয়ে যাবে।

২। অলিভ অয়েল এবং টি-ট্রি অয়েল

চাঁর-পাঁচ ফোঁটা টি-ট্রি অয়েল নিন। তার সঙ্গে সম পরিমাণ অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। সেই মিশ্রণ নখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। সময় হলে হালকা গরম জল দিয়ে নখ ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এই ঘরোয়া পদ্ধতির সাহায্যে নিলে নখের হারিয়ে যাওয়া সৌন্দর্য ফিরে আসতে সময় লাগবে না। সঙ্গে নখে বা আঙুলে কোনও ধরনের সংক্রমণ হওয়ার আশঙ্কাও কমবে।

৩। বেকিং সোডা

এতে রয়েছে নানা রকমের এক্সফোলিয়েটিং এজেন্ট, যা নখের দাগ-ছোপ দূর করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এক্ষেত্রে ২ চামচ বেকিং সোডার সঙ্গে অল্প করে জল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। নখে লাগিয়ে ২ মিনিট ভাল করে ঘষতে হবে। এরপরে ২ মিনিট অপেক্ষা করে সাবান দিয়ে ভাল করে হাত ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে তিন দিন এই ভাবে নখের যত্ন নিলে উপকার পাবেই পাবেন। এক চামচ বেকিং সোডার সঙ্গে অর্ধেক লেবুর রস মিশিয়ে তৈরি পেস্ট নখে লাগালেও সমান উপকার পাওয়া যায়।.

৪। লেবুর রস

হাতের কাছে কিছু না পেলে একটা ছোট্ট বাটিতে চামচ চারেক লেবুর রস নিয়ে তা তুলোর সাহায্যে নখে লাগিয়ে মিনিটপাঁচেক ভাল করে ঘষুন। দেখবেন, উপকার পাবেই পাবেন। কারণ, পাতি লেবুর রস হল প্রকৃতিতে অ্যাসিডিক, সেই সঙ্গে এতে মজুত রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, যা নখের যত্নে বিশেষভাবে কাজে আসে।

Leave a Reply