You are currently viewing আনইভেন টেক্সচার

আনইভেন টেক্সচার

ত্বকের আনইভেন টেক্সচার সাধারণত ত্বকের উপরে অতিরিক্ত ডেড সেলস, প্রিতিদিন ত্বকের যত্ন না নেয়া এবং সূর্যের ক্ষতিকারক রস্মি এর ফলে তৈরী হয়। যার ফলে ত্বক রুক্ষ এবং বাম্পি হয়ে যাওয়া, ত্বকের মৃত কোষ বৃদ্ধি এবং ত্বকের মসৃণতা ও উজ্জ্বলতা হারিয়ে যেতে পারে। সূর্যের ক্ষতিকারক রস্মি ছাড়াও দূষিত পদার্থের সংস্পর্শে আসলেও এই সমস্যাগুলো দেখা দিতে পারে। সমস্যা গুরুতর হলে অবশ্যই অনতিবিলম্বে চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের মতামত নিয়ে সমাধান করতে হবে। তবে টেক্সচারের সাথে দীর্ঘস্থায়ী সমস্যাগুলির সমাধানের জন্য এবং ত্বকের টেক্সচার উন্নত করার জন্য কিছু বিকল্প পদ্ধতি আছে যা দিয়ে আপনি বাড়িতেই বেশিরভাগ সমস্যার সমাধান করতে পারবেন। সঠিক পণ্য এবং সঠিক ভাবে ব্যবহার করলে আমরা নিশ্চিত যে আপনি লক্ষ্য করবেন কিভাবে আপনার ত্বকের উন্নতি হয়েছে। নীচে, কয়েকটি উপায় উল্লেখ করা হলো:

পানি পান করা:

ত্বকের টেক্সচারের উন্নতি এবং মসৃণতা বৃদ্ধির সব থেকে সহজ উপায় হলো পর্যাপ্ত পরিমান পানি পান করা এবং হাইড্রেটেড থাকা। কারণ ময়েস্টার ও হাইড্রেশন ত্বককে সুন্দর এবং মসৃণ করে তোলে । ময়শ্চারাইজড ত্বক ডালনেস ও কমিয়ে দেয়, যা আনইভেন টেক্সচারের একটি সাধারণ লক্ষণ।

এক্সফোলিয়েট:

প্রতি সপ্তাহে অন্তত দুইবার একটি এক্সফোলিয়েট দিয়ে ভালো ভাবে মুখ পরিষ্কার করতে হবে যার ফলে ডেড সেলস দূর হবে। তবে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো এমন একটি এক্সফোলিয়েট খুঁজে বের করতে হবে যেটি আপনার ত্বকের জন্য মানানসই। কারণ সঠিক এক্সফোলিয়েটর ব্যবহার না করলে আপনার ত্বকে অতিরিক্ত তেল উৎপাদন হতে পারে বা ত্বক অতিরিক্ত রুক্ষ হয়ে যেতে পারে যা ত্বকের টেক্সচার নষ্ট হওয়ার অন্যতম কারণ।

ফেসিয়াল অয়েল:

যদিও এটি অস্বাভাবিক মনে হতে পারে কিন্তু ভালো ফেসিয়াল অয়েল ব্যবহার করলে ত্বকে এর অতিরিক্ত তেল উৎপাদন কমে যেতে পারে। ফেসিয়াল অয়েল ব্যবহারে ত্বকের আদ্রতা কমে যাওয়ার সমস্যা দূর করে এবং ত্বকের প্রাকৃতিক হাইড্রেশন এ সাহায্য করে।

ভিটামিন সি:

ভিটামিন সি একটি অপরিহার্য উপাদান যা আপনার ত্বককে অমসৃণতা এবং রুক্ষতা থেকে রক্ষা করবে। এটি ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াবে, পাশাপাশি ফাইন লাইনস এর উপস্থিতি হ্রাস করবে। বোনাস হিসেবে ভিটামিন সি তে গ্লিসারিন থাকে যেটি আপনার ত্বকের আদ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে।

সানস্ক্রিন:

যেহেতু ত্বকের অমসৃণতা প্রায়ই সূর্যের ক্ষতির কারণে হয়ে থাকে, তাই প্রতিদিন সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে ভুলবেন না। বিশেষ করে এটি ময়েস্টারাইজার ব্যাবহার করার পরে এবং মেকআপ করার আগে ব্যবহার করা যায়।

Leave a Reply